বিধান শিশু উদ্যানে আগামী মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের মক টেস্ট 

✍️মোল্লা জসিমউদ্দিন

মঙ্গলবার বিধান শিশু উদ্যানে আগামী মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের জন্য মক টেস্ট চললো,চলবে আরও বেশ কয়েক দিন। কলকাতার বিভিন্ন নামি-দামি স্কুল সহ মফস্বল এলাকার বিভিন্ন স্কুলের পড়ুয়ারা  এদিন এই মক টেস্টে অংশগ্রহণ করে থাকে। সম্প্রতি   আগামী ২০২৩ সালের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের জন্য বুস্টার ক্লাস চলেছিল।সকাল ১১ টা থেকে বিকেল ৫ টা অবধি এই ক্লাসগুলি চলেছিল।রামকৃষ্ণ সারদা মিশন,সিস্টার নিবেদিতা গার্লস স্কুল,টাকি বয়েজ, স্কটিশ চার্য স্কুল,বেথুন স্কুল,হোলি চাইল্ড স্কুল প্রভৃতি স্কুল থেকে পঞ্চাশের বেশি মাধ্যমিক  পড়ুয়া  এই ক্লাসে অংশগ্রহণ করে ছিল।ওই বুস্টার  ক্লাসের দিনে ভৌত বিজ্ঞানের শিক্ষক সঞ্জীব পাল,জীবন বিজ্ঞানের শিক্ষক দেবেশ দাস,ইতিহাসের শিক্ষক এ.কে.এম সরিফুজাম্মান,ইংরেজির শিক্ষক মোস্তাফা হাবিব,অংকের শিক্ষক অরুপ ঘোষ প্রমুখ এসেছিলেন বলে জানিয়েছেন বিধান শিশু উদ্যানের সম্পাদক গৌতম তালুকদার মহাশয়।উল্লেখ্য, গত ২০২০ সালের মাধ‍্যমিকের মেধা তালিকায় বিধান শিশু উদ‍্যান পরিচালিত  প্রয়াস মক টেস্টে অংশগ্রহণকারী ৩০ জন ছাত্রছাত্রী স্থান পেয়েছিল।জননেতা অতুল‍্য ঘোষ প্রতিষ্ঠিত বিধান শিশু উদ‍্যান ১৯৭৬ সাল থেকে ধারাবাহিকভাবে শিশুদের সর্বাত্বক উন্নতিসাধনে কাজ করে আসছে। বিভিন্ন ধরনের খেলাধূলা,নাচ,গান সহ এগারোটি দেশি-বিদেশি ভাষা শেখানো হয় বিধান শিশু উদ‍্যানে যা সম্পূর্ণ অবৈতনিক।বিগত কয়েক বছর ধরে এই ধরনের কার্যক্রমের পাশাপাশি রাজ‍্যজুড়ে মাধ‍্যমিক এবং উচ্চ মাধ‍্যমিক ছাত্রছাত্রীদের শিক্ষার উৎকর্ষসাধনে সারা বছর ধরে বিষয়ভিত্তিক ক্লাস,কর্মশালা এবং মক টেস্টের আয়োজন করা হচ্ছে।এই মক টেস্টগুলোর জন‍্য ছাত্রছাত্রীদের কাছ থেকে অতি সামান্য অর্থ নেওয়া হয় অথবা বহু ক্ষেত্রে কোনোরকম অর্থ নেওয়া হয়ও না। বিপুল পরিমাণ ভরতুকি দিয়ে এই মক টেস্টগুলো করা হয় বলে রাজ‍্যের প্রত‍্যন্ত অঞ্চলের আর্থিকভাবে পিছিয়ে থাকা ছাত্রছাত্রীরা অংশগ্রহণ করে এবং তাদের যে বেশ কিছুটা  উপকার হয় তা মাধ‍্যমিক ও উচ্চমাধ‍্যমিকের ফলাফলেই প্রকাশ পায়।